32 C
Dhaka
May 29, 2024
অগ্রবর্তী সময়ের ককপিট
বাংলাদেশ সর্বশেষ

তীব্র গরমেও ঢাকার বিপণিবিতানে উপচেপড়া ভিড়

ঈদের আগে শেষ শুক্রবারে কেনাকাটা জমে উঠেছে রাজধানীর বিপণিবিতানগুলোতে। ঢাকায় দুপুরে তীব্র গরম অনুভূত হয়।এ তীব্র তাপপ্রবাহ মাথায় নিয়েও ঈদের কেনাকাটায় ব্যস্ত দেখা গেছে নগরবাসীকে। আর ঈদ কেনাকাটা নির্বিঘ্ন করতে মার্কেটে মার্কেটে বুথ বসিয়ে বিশেষ নিরাপত্তা নিশ্চিতে কাজ করছে পুলিশ।

শুক্রবার (৫ এপ্রিল) রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার বিপণিবিতান ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে। বসুন্ধরা সিটি শপিং কমপ্লেক্স, নিউমার্কেট ও মৌচাক মার্কেটসহ কয়েকটি মার্কেট ঘুরে দেখা যায়, সেখানে পরিবার-পরিজন নিয়ে অনেকেই এসেছেন ঈদের জন্য বাজার করতে। তীব্র গরমেও রাজধানীর বিপণিবিতানগুলোতে উপচেপড়া ভিড়।

জানা গেছে, এদিন সকাল থেকেই এসব মার্কেটগুলোতে ক্রেতাদের কিছুটা ভিড় লক্ষ্য করা যায়। তবে জুমার নামাজের পর তা বহুগুণ বেড়েছে। আর বিকেল থেকে সন্ধ্যার পরপর এ চাপ আরও বাড়ে। ফলে বিপণিবিতানগুলোতে পা ফেলার জায়গা পাওয়া ছিল কঠিন। ঈদের কেনাকাটা করতে আসা ক্রেতাদের সবাইকেই ঘামে ভিজতে হয়েছে। উচ্চবিত্ত মানুষেরা ভিড় করেছেন বসুন্ধরা সিটি শপিং কমপ্লেক্স ও বেইলি রোডসহ অভিজাত বিপণিবিতানে। অপরদিকে দামে স্বস্তি পেতে মধ্যবিত্তরা ছুটছেন মৌচাক, নিউমার্কেটের মতো মার্কেটগুলোতে।

বিক্রেতারা বলছেন, ঈদের আর চার থেকে পাঁচদিন বাকি। আজ ছিল ঈদের আগের সর্বশেষ সাপ্তাহিক ছুটি, ফলে বেচাকেনা কয়েকগুণ বেড়েছে। বিশেষ করে ঈদের ছুটিতে যে-সব মানুষ ঢাকা ছাড়বেন তারা কেনাকাটা করছেন। ফলে মার্কেটগুলোতে ক্রেতাদের অনেক চাপ দেখা যাচ্ছে। এখন থেকে নিয়মিত এমনই থাকবে। একদম চাঁদরাত পর্যন্ত লোকজন কেনাকাটা করবে।

নিউমার্কেটে আসা ক্রেতা হালিমা খাতুন বলেন, তীব্র গরমে কষ্ট হচ্ছে, তবু কী করার আছে। মার্কেটে তো আসতে হবেই। বাচ্চাসহ সবার জন্য কেনাকাটা লাগে।

আরেক ক্রেতা আব্দুল্লাহ বলেন, আমি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করি। ছুটি পেতে আরও দুই-তিন দিন। আজ শুক্রবার ছিল, তাই স্ত্রীকে নিয়ে আসলাম। দাম মোটামুটি আছে। কিন্তু গরম অনেক বেশি। বাধ্য হয়েই আসা। আর তো সময় বেশি নেই।

কাপড় কিনতে আসা রাসেল খন্দকার বলেন, ঈদের আগে কেনাকাটা করা বেশ ঝামেলার। তবুও আসতে হয়েছে। আজ ছুটির দিন, এজন্য এসেছি।

পল্টন, নিউমার্কেটের দোকানগুলোতে ক্রেতা সমাগমের পাশাপাশি রাস্তায় ফুটপাতে থাকা দোকানেও ক্রেতাদের ভিড় দেখা গেছে। মার্কেটের তুলনায় ফুটপাতের দোকানে জিনিসপত্রের দাম কম থাকায় এখানে অনেকেই কেনাকাটা সারছেন।

সম্পর্কিত খবর

লিটন যাচ্ছেন, জানেন না পাপন

Zayed Nahin

মৃত্যুশয্যায়ও ‘গ্রন্থাগারের নীরবতা’ মনে পড়বে কামিন্সের

Shopnamoy Pronoy

‘রোহিতের নেতৃত্ব দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে’

Shopnamoy Pronoy

মন্তব্য করুণ

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন, তবে আপনি ইচ্ছা করলেই অপ্ট আউট করতে পারেন। স্বীকার করুন বিস্তারিত