অগ্রবর্তী সময়ের ককপিট
বাংলাদেশ রাজনীতি

বিএনপির ‘শান্তিপূর্ণ’ আন্দোলনের নমুনা হামলা, ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ: তথ্যমন্ত্রী

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপি যে অগ্নিসন্ত্রাস, নৈরাজ্যের পথ থেকে বের হয়নি, সেটা তারা চট্টগ্রামে দেখিয়েছে। ঢাকায় খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, তাঁরা শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করতে চান। আর চট্টগ্রামে তাঁদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের নমুনা হচ্ছে পুলিশের ওপর হামলা, গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ। মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ে তথ্য অধিদপ্তরের সম্মেলনকক্ষে মোনায়েম সরকার সম্পাদিত ‘আবদুল গাফ্‌ফার চৌধুরী স্মারক গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন। হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আমরা বারবার বলে আসছি, বিএনপি দেশে অশান্তি সৃষ্টির জন্যই সভা-সমাবেশগুলো করছে। সেই সমাবেশের নামে যেহেতু তারা আবার অগ্নিসংযোগ শুরু করেছে, পুলিশের ওপর হামলা করছে এবং সে কারণে জনজীবন নিরাপত্তা বিঘ্নিত হচ্ছে, অতএব ভবিষ্যতে তাদের সমাবেশের ক্ষেত্রে আরও সতর্ক থাকতে হবে। তারা সমাবেশের কথা বলে আবার কী করে, সেটা নিয়েও ভাবতে হবে, সিদ্ধান্ত নিতে হবে। বিএনপির রাজনীতি জনমুখী নয়, বিদেশিমুখী উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘তারা রাতের অন্ধকারে বিদেশি কূটনীতিকদের কাছে ছুটে যাওয়ার নীতি নিয়েছে। তবে এসব করে যে কোনো লাভ হয়নি সেটা তারা বুঝেছে, যখন সম্প্রতি মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশ সফরে এসে বলে গেছেন যে বাংলাদেশে নিরাপত্তা বাহিনীর কাজের গুণগত উন্নতি হয়েছে এবং যুক্তরাষ্ট্র আমাদের নিরাপত্তা বাহিনীকে সহায়তা করতে চায়, প্রশিক্ষণ দিতে চায়। এতে তাদের মাথাটা খারাপ হয়ে গেছে। ফলে এখন তারা আবোল-তাবোল বকা শুরু করেছে। বিএনপির ওপর দমন-নিপীড়নের অভিযোগ খণ্ডন করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সরকার বিএনপির ওপর দমন-নিপীড়ন চালাচ্ছে না। বিএনপিকে বলব, তারা যখন ক্ষমতায় ছিল, কী করেছিল, সেটা দেখতে পেছনে তাকানোর জন্য। তারা অপারেশন ক্লিনহার্টের নামে ২০০২ সালে ডজন ডজন মানুষ হত্যা করেছিল, আওয়ামী লীগের গবেষণা প্রতিষ্ঠান সিআরআই অফিসের মালামাল লুট করে সিল করে দিয়েছিল। এর আগে হাছান মাহমুদ ‘আবদুল গাফ্‌ফার চৌধুরী  স্মারকগ্রন্থ প্রণয়নের জন্য সম্পাদক মোনায়েম সরকারকে ধন্যবাদ জানান। এ সময় প্রয়াত আবদুল গাফ্‌ফার চৌধুরীর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে মন্ত্রী বলেন, ‘জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জাতিসংঘের মাধ্যমে ২১ ফেব্রুয়ারি আজ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে অভিষিক্ত। আমাদের দুই প্রবাসী সালাম এবং রফিক এ বিষয়ে যে উদ্যোগ নিয়েছিলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা তা দ্রুততম সময়ে রাষ্ট্রের পক্ষে জাতিসংঘে পাঠিয়েছিলেন। তাই “আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি” আবদুল গাফ্‌ফার চৌধুরীর এই কালজয়ী গান বিশ্বময় নিজ নিজ ভাষায় গাওয়া হয়। বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন ফর ডেভেলপমেন্ট রিসার্চের সহায়তায় আগামী প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত ৪১৬ পৃষ্ঠার ‘আবদুল গাফফার চৌধুরী’ স্মারকগ্রন্থটিতে প্রায় ৮০টি নিবন্ধ, সাক্ষাৎকার, গাফ্‌ফার চৌধুরীর কবিতা ও গল্প আছে।

সম্পর্কিত খবর

বন রক্ষায় ডিজিটাল জরিপের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

gmtnews

সকল ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে প্রমত্তা পদ্মার বুকে আজ মাথা তুলে দাঁড়িয়েছে পদ্মা সেতু: প্রধানমন্ত্রী

gmtnews

টাইগারদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জার্সি উন্মোচন

gmtnews

মন্তব্য করুণ

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন, তবে আপনি ইচ্ছা করলেই অপ্ট আউট করতে পারেন। স্বীকার করুন বিস্তারিত