অগ্রবর্তী সময়ের ককপিট
খেলা ফুটবল

মেসিদের প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচের প্রতিপক্ষ চূড়ান্ত

গত জুনে ইউরোপ ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রের ফুটবলে যাত্রা শুরু করেন লিওনেল মেসি। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন মেসির আগমন বদলে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের খেলার দুনিয়াকে। মাঠে ও মাঠের বাইরে তাঁর হাত ধরেই সকার হয়ে উঠেছে ফুটবল। এর মধ্যে মায়ামিকে ইতিহাসের প্রথম শিরোপাও জিতিয়েছেন মেসি।

মৌসুমের শেষ দিকে চোট এবং ক্লান্তির কারণে ঠিকঠাক খেলতে পারেননি মেসি। যার ফলে ইউএস ওপেন কাপের ফাইনালে উঠেও আর শিরোপা জেতা হয়নি। এমনকি জায়গা নিশ্চিত করতে পারেনি এমএলএসের প্লে-অফেও। এটুকু বাদ দিলে অবশ্য যুক্তরাষ্ট্রের ফুটবলে মেসির শুরুটা দুর্দান্তই বলতে হবে। পুরো মৌসুম খেলা না হলেও অল্প সময়ের মধ্যে দারুণ প্রভাব রেখেছেন মেসি।

গত মৌসুমের সাফল্য-ব্যর্থতাকে পেছনে ফেলে মেসির চোখ এখন নতুন মৌসুমের দিকে। ২০২৪ সালেই মূলত পূর্ণাঙ্গ মৌসুম খেলবেন মেসি। যেখানে বড় কিছুর লক্ষ্য নিয়েই মাঠে নামবে তাঁর দল। মৌসুম সামনে রেখে এর মধ্যে প্রথম প্রাক্‌-মৌসুম প্রীতি ম্যাচের সূচিও ঠিক করেছে ইন্টার মায়ামি। যেখানে তারা প্রথম ম্যাচ খেলবে এল সালভাদরের বিপক্ষে। আগামী ১৯ জানুয়ারি সান সালভাদরের এস্তাদিও কাসকাতলানে মুখোমুখি হবে মায়ামি ও সালভাদর। এরপর আর্জেন্টাইন পরাশক্তি রিভার প্লেটের সঙ্গেও ইন্টার মায়ামির ম্যাচ খেলতে পারে।

সালভাদরের সঙ্গে ম্যাচ নিয়ে একটা দুশ্চিন্তাও আছে মায়ামিতে। এই ম্যাচের এক দিন পরই যুক্তরাষ্ট্র আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ খেলবে স্লোভেনিয়ার সঙ্গে। এ পরিস্থিতিতে মায়ামির দুই মার্কিন ফুটবলার বেঞ্জামিন ক্রেমাশ্চি ও দেয়ান্দ্রে ইয়েলডিন জাতীয় দল, নাকি ক্লাবের হয়ে খেলবেন, তা নিয়েও সিদ্ধান্তে আসতে হবে দুই পক্ষকে।

ম্যাচের দিন–তারিখ ঠিক হওয়া নিয়ে মায়ামির প্রধান সকার অফিসার ও স্পোর্টিং ডিরেক্টর ক্রিস হেন্ডারসন বলেছেন, ‘২০২৪ মৌসুম সামনে রেখে প্রাক্-মৌসুম পরিকল্পনা ও প্রস্তুতি নিয়ে ঘোষণা দিতে পেরে আমরা রোমাঞ্চিত। আমরা এল সালভাদর জাতীয় দলের সঙ্গে মুখোমুখি হওয়ার অপেক্ষায় আছি। একটি দেশের সেরা খেলোয়াড়দের মুখোমুখি হওয়াটা দলের জন্য ভালোই চ্যালেঞ্জিং হবে।’

প্রাক্‌–মৌসুম সূচি ঠিক হওয়ার পাশাপাশি টিকিট বিক্রি নিয়েও সুসংবাদ পেয়েছে মায়ামি। মেসি আসার পর থেকেই অবশ্য মায়ামির ম্যাচে দর্শক উপস্থিতিতে দারুণ উল্লম্ফন দেখা গেছে।

এবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিবৃতি দিয়ে মায়ামি তাদের ‘সিজন টিকিট’ বিক্রি হয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। তবে ‘সিজন টিকিট’ না থাকলেও দ্রুত একক ম্যাচের টিকিট বিক্রি শুরুর ঘোষণা দিয়েছে মায়ামি।

মেসির কারণে টিকিট বিক্রি বাড়লেও এ উন্মাদনায় খুশি নন মায়ামির কট্টর সমর্থকেরা। টিকিটের দামের কারণে অনেক সমর্থক অর্থনৈতিকভাবে চাপে পড়েছেন। ২০২৪ সালের টিকিটের মূল্য দ্বিগুণ করার ঘোষণা নিয়ে মাইক লনগিন নামের এক কট্টর সমর্থক কদিন আগে বলেছিলেন, ‘এ ঘটনা অনেককে বিস্মিত করেছে। এই মূল্য অনেকের সাধ্যের বাইরে। এটা হজম করা কঠিন। অনেকে এতে হতাশ হয়েছে।’

সম্পর্কিত খবর

আজ থেকে শুরু হচ্ছে বঙ্গবন্ধু ডিপিএল

gmtnews

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজে ফিরল ইংল্যান্ড

Shopnamoy Pronoy

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে, বাংলাদেশে দলের জন্য আজকের দিনটা কঠিনতম পরীক্ষার

Zayed Nahin

মন্তব্য করুণ

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন, তবে আপনি ইচ্ছা করলেই অপ্ট আউট করতে পারেন। স্বীকার করুন বিস্তারিত