30 C
Dhaka
June 13, 2024
অগ্রবর্তী সময়ের ককপিট
বিশ্ব সর্বশেষ

সব সম্পদ বেচে বিশ্বভ্রমণে

ভ্রমণপিপাসু মানুষ ঘুরে বেড়াতে কত কিছুই না করেন! তবে মার্কিন এক দম্পতি এ ক্ষেত্রে যা করেছেন, তাকে বিচিত্রই বলতে হবে। নিজেদের যত সম্পদ ছিল, তার প্রায় সব বিক্রি করে বিশ্বভ্রমণে বেরিয়েছেন তাঁরা।

এই দম্পতি হলেন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার বাসিন্দা জন হেনেসি (৭৬) ও তাঁর স্ত্রী মেলোডি হেনেসি (৬৪)। তাঁরা স্বপ্ন দেখতেন, একসঙ্গে বিশ্বভ্রমণ করবেন। স্বপ্নপূরণের লক্ষ্যে তিন বছর আগে ‘সাহসী’ এক সিদ্ধান্ত নেন তাঁরা। বাড়িসহ প্রায় সব সম্পদ বিক্রি করে দেন। এরপর সব ছেড়ে তাঁরা বেরিয়ে পড়েন বিশ্বভ্রমণে।

সম্পদ বিক্রির অর্থ দিয়ে সবার আগে একটি মোটরহোম (এক কক্ষের বাড়িতে রূপান্তরিত গাড়ি) কেনেন জন ও মেলোডি। মোটরহোমে করে তাঁরা গোটা যুক্তরাষ্ট্র ঘুরে বেড়ান। এরপর যান প্রতিবেশী দেশগুলোতে। তবে একপর্যায়ে গিয়ে এভাবে ভ্রমণ করার বিষয়টি একঘেয়েমি মনে হয় তাঁদের।

হঠাৎ একদিন ফেসবুকে একটি বিজ্ঞাপনে চোখ আটকে যায় জন ও মেলোডির। বিজ্ঞাপনটি ছিল টানা ২৭৪ দিন প্রমোদতরিতে ভ্রমণের। প্রমোদতরির যাত্রী হতে দ্রুত নিবন্ধন করেন জন ও মেলোডি। সংসারজীবন ছেড়ে উঠে পড়েন তাতে। এরপর বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে ভ্রমণ করেছেন তাঁরা। এখন আছেন ডমিনিকান রিপাবলিকে।

মার্কিন এই দম্পতি বলেন, সংসারজীবন চালানোর চেয়ে এই ‘সন্ন্যাসজীবনে’ খরচ বরং কম। জন হেনেসি বলেন, ‘আমাদের এখন জাহাজভাড়া ও উপকূলে নেমে কোনো দেশ ভ্রমণ করলে ক্রেডিট কার্ডে কিছু খরচ হয়। তবে এখন আমাদের আর গৃহস্থালি খরচ বা ঋণ পরিশোধ করতে হয় না। দিতে হয় না গ্যাস, পানি ও বিদ্যুৎ–ইন্টারনেটের মতো বিভিন্ন পরিষেবার বিল। গাড়ি বা সম্পদের বিমার খরচ নেই। আমরা এ ব্যাপারে খুবই নিশ্চিত যে সংসারের চেয়ে এতে খরচ কম। আগে আমাদের যে ব্যয় হতো তার চেয়ে খরচ প্রায় অর্ধেক কমে গেছে।’

জন ও মেলোডি জানান, তাঁরা যে প্রমোদতরিতে আছেন, সেটি যখন কোনো দেশের বন্দরে নোঙর করে, তখন সেই দেশে সাধারণত পাঁচ থেকে সাত দিন ঘুরে বেড়ানোর সুযোগ পান তাঁরা। আগামী বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রমোদতরিতে ঘুরে বেড়ানোর পরিকল্পনা করছেন বলেও জানালেন তাঁরা।

সম্পর্কিত খবর

পাঁচ বছরে কৃষিজাত পণ্য রপ্তানি দ্বিগুণ

Zayed Nahin

বাংলাদেশ–মালদ্বীপ একপেশে লড়াই থেকে দ্বৈরথ হয়ে ওঠার গল্প

Shopnamoy Pronoy

দেশের অগ্রগতি ব্যাহতের চক্রান্তের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে তৌফিকের আহ্বান

gmtnews

মন্তব্য করুণ

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন, তবে আপনি ইচ্ছা করলেই অপ্ট আউট করতে পারেন। স্বীকার করুন বিস্তারিত