অগ্রবর্তী সময়ের ককপিট
বাংলাদেশ সর্বশেষ

বাংলাদেশ থেকে রোহিঙ্গা নেবে যুক্তরাষ্ট্র

বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে রোহিঙ্গাদের যুক্তরাষ্ট্রে পুনর্বাসন অব্যাহত রাখার অঙ্গীকার করেছে ওয়াশিংটন। পাশাপাশি রোহিঙ্গা পুনর্বাসন করতে অন্য দেশগুলোকেও উৎসাহ দেবে। শুক্রবার মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ১৩ থেকে ১৫ ডিসেম্বর সুইজারল্যন্ডের জেনেভায় বৈশ্বিক শরণার্থী ফোরামের (জিআরএফ) আয়োজন করা হয়। শরণার্থীদের নিয়ে সবচেয়ে বড় এ সম্মেলনে ২৬টি বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। তাতে উঠে এসেছে রোহিঙ্গা সংকটের বিষয়টিও।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২০২৪ অর্থবছরে যুক্তরাষ্ট্রের ইউএসআরএপির (ইউনাইটেড স্টেটস রিফিউজি অ্যাডমিশন প্রোগ্রাম) আওতায় বাংলাদেশসহ অন্যান্য দেশ থেকে রোহিঙ্গাদের যুক্তরাষ্ট্রে পুনর্বাসন করা হবে। এ ছাড়া ২০২৪ সালে রোহিঙ্গা পুনর্বাসনে অন্য দেশগুলোকে উৎসাহিত করবে ওয়াশিংটন।

যুক্তরাষ্ট্রের শ্রমবাজারে রোহিঙ্গাদের প্রবেশের সুযোগ দেওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করে বলা হয়েছে, রোহিঙ্গাদের সাক্ষরতা, কারিগরি প্রশিক্ষণ ও দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য সহায়তামূলক বিভিন্ন প্রচেষ্টা চালাবে ওয়াশিংটন। রোহিঙ্গাদের ও আশ্রয়দাতা দেশগুলোর সহায়তায় আন্তর্জাতিক আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে আরও সম্পৃক্ত করতে যুক্তরাষ্ট্র কার্যকরভাবে কাজ করবে। এ ছাড়া রোহিঙ্গা ও তাদের আশ্রয়দাতা দেশগুলোর জন্য যুক্তরাষ্ট্রের মানবিক ও উন্নয়নমূলক সহায়তার মধ্যে অভ্যন্তরীণ সমন্বয় জোরদার করা হবে।

মার্কিন সরকার বলছে, বিশ্বে বাস্তুচ্যুত মানুষের সংখ্যা নজিরবিহীনভাবে বাড়ছে। ২০২৩ সালের ডিসেম্বরে জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআরের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, সারা বিশ্বে ১৩ কোটির বেশি মানুষ জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত হয়েছেন।

সম্পর্কিত খবর

বাংলাদেশ ভবিষ্যতে ইউনেস্কো-বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক পুরস্কার পাবে : প্রধানমন্ত্রী

gmtnews

ব্যাটারদের ব্যর্থতায় পাকিস্তানের কাছে টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারলো বাংলাদেশ

gmtnews

” বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি ” (এ.পি.এ) – এর আওতায় বাংলাদেশ পুলিশ এর মূল্যায়ন অসাধারণ :

gmtnews

মন্তব্য করুণ

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন, তবে আপনি ইচ্ছা করলেই অপ্ট আউট করতে পারেন। স্বীকার করুন বিস্তারিত